ইবাদত ও আমল

ইসলামে কালেমা বা সাক্ষি দিয়ে মুসলিম হবার পর পর-ই ইবাদত এর মধ্যে সরবোত্তম ইবাদত হলো স্বলাত/ নামাজ আদায় করা সকলের জন্য ফরজ হয়ে যায়; আর আল্লাহর আদেশের সাথে সাথে নিষেধ মানাও ইবাদত তাই প্রত্যেকের ইসলাম সম্পর্কে ভালকরে জেনে কুরআন ও সুন্নাহ দ্বারা সঠিক ভাবে ইবাদত করা, কারণ ইবাদত যারা করে না তাঁরা আল্লাহকে ভূলে যায় আর আল্লাহ্‌র গোলাম কখনো তাঁর মালিককে ভূলে যেতে পারে না।  তাই আমাদের প্রত্যেক মুসলিমের  দরকার নিয়মিত ইবাদত করা, আল্লাহ আমাদের জানিয়েছেন তাঁর কুরআন মাজীদে যেঃ তিনি জ্বীন ও মানুষকে সৃষ্টিই করেছেন তাঁর ইবাদত এর জন্য; আজ আমরা তাঁর ইবাদত না করে নিজেদের ইবাদত করে বেরাচ্ছে আমরা নিজে ভোগ বিলাস ও চাহিদা মিটানোর ক্ষেত্রে কত কিছুই না করে যাচ্ছি কিন্তু একবারের জন্য  ও কি সৃষ্টি কর্তার কথা ভাবছি? অনেকেই আল্লাহ্‌ ব্যাতীত পীর মাজার কবর ইত্যাদির ইবাদত ও আমল করেন, আল্লাহ্‌ বলেনঃ

তারা আল্লাহ ব্যতীত এমন বস্তুর ইবাদত করে, যে তাদের জন্যে ভুমন্ডল ও নভোমন্ডল থেকে সামান্য রুযী দেওয়ার ও অধিকার রাখে না এবং মুক্তি ও রাখে না।
সূরা আন নাহলঃ ৭৩ নাম্বার আয়াত।

আল্লাহ্‌ আরো বলেনঃ ”

নভোমন্ডল ও ভুমন্ডলে যারা আছে, তারা তাঁরই। আর যারা তাঁর সান্নিধ্যে আছে তারা তাঁর ইবাদতে অহংকার করে না এবং অলসতাও করে না।”
তারা রাত্রিদিন তাঁর পবিত্রতা ও মহিমা বর্ণনা করে এবং ক্লান্ত হয় না।
যদি নভোমন্ডল ও ভুমন্ডলে আল্লাহ ব্যতীত অন্যান্য উপাস্য থাকত, তবে উভয়ের ধ্বংস হয়ে যেত। অতএব তারা যা বলে, তা থেকে আরশের অধিপতি আল্লাহ পবিত্র।
তারা কি আল্লাহ ব্যতীত অন্যান্য উপাস্য গ্রহণ করেছে? বলুন, তোমরা তোমাদের প্রমাণ আন। এটাই আমার সঙ্গীদের কথা এবং এটাই আমার পুর্ববর্তীদের কথা। বরং তাদের অধিকাংশই সত্য জানে না; অতএব তারা টালবাহানা করে।

যে ব্যক্তি নিজের পিতা ও ফুফুদের সাথে কথা বলে না নামায পড়ে না এবং আল্লাহ্‌র প্রতি মন্দ ধারণা পোষণ করে

যে ব্যক্তি নিজের পিতা ও ফুফুদের সাথে কথা বলে না নামায পড়ে না এবং আল্লাহ্‌র প্রতি মন্দ ধারণা পোষণ করে আলহামদু লিল্লাহ। এক: যে ব্যক্তি নানারকম দুশ্চিন্তায় জর্জরিত, প্রশস্ত দুনিয়াও…

Continue Reading যে ব্যক্তি নিজের পিতা ও ফুফুদের সাথে কথা বলে না নামায পড়ে না এবং আল্লাহ্‌র প্রতি মন্দ ধারণা পোষণ করে

তাওহীদ কাকে বলে? তা কত প্রকার ও কী কী?

তাওহীদ কাকে বলে? তা কত প্রকার ও কী কী? উত্তর: তাওহীদ শব্দটি (وحد) ক্রিয়ামূল থেকে উৎপত্তি হয়েছে। এর আভিধানিক অর্থ কোনো জিনিসকে একক হিসেবে নির্ধারণ করা। ‘না’ বাচক ও ‘হ্যাঁ’ বাচক…

Continue Reading তাওহীদ কাকে বলে? তা কত প্রকার ও কী কী?